Breaking News
Home / Tips / মাত্র ৯ সেকেণ্ডেই ডিমের খোসা ছা’ড়ানোর দারুন কৌশল জে’নে নিন!

মাত্র ৯ সেকেণ্ডেই ডিমের খোসা ছা’ড়ানোর দারুন কৌশল জে’নে নিন!

ছোট থেকে বড় সবাই ডিম খেতে পছন্দ করেন। তবে সিদ্ধ ডিমের খোসা ছাড়াতে গৃহিণী থেকে ব্যচেলর সবাই নাজেহাল হয়ে থাকেন। কেউ ডিমের খোসা ছাড়াতে গিয়ে প্রায় অর্ধেক ডিমের গায়ের অংশই খুবলে ফে’লে ন! আবার কেউ হয়তো এত ধীরে সু’স্থে সেই খোসা ছাড়ান যে পাঁচ দশ মিনিট পার হয়ে যায়!

তবে একটি সহজ উপায়ে মাত্র নয় সেকেণ্ডেই কিন্তু আপনি ডিমের খোসা ছাড়াতে পারেন। কীভাবে একটি সিদ্ধ ডিমের খোসা খুব নিমেষে ছাড়ানো যায় জে’নে নিন-একটি গ্লাস নিন। গ্লাসের ভি’তরে সিদ্ধ ডিম নিয়ে তাতে ঠাণ্ডা পানি ভরে নিন। তারপরেই ওই গ্লাস থেকে ডিমটি বের করার আগে কয়েক সেকেন্ড গ্লাসটি ভালো করে ঝাঁ’কিয়ে নিন।এরপর ডিমটি বের করে আঙুলের চা’প দিলেই সেটি ডিম থেকে আলগা হয়ে বেরিয়ে আসবে।

ব’গলের বি’চ্ছিরি কালো দাগ দূর করতে শি’খে নিন ঘরোয়া ৫ টি উপায়!আন্ডারআর্ম বা বগলের নিচে কালো দাগ না’রীদের জন্য বির’ক্তিকর একটি স’মস্যা। সাধারণত ম’রা কোষ জমে বগলের নিচের অংশ কালো হয়ে যায়। এছাড়া বংশগত কারণে,অ’তিরিক্ত ডিওডোরেন্ট ও বডি স্প্রে ব্যবহারের কারণে, ডায়াবেটিস এর কারণে কিংবা হ’ঠাৎ ওজন বেড়ে যাওয়া বা কমে যাওয়ার কারণে সৃষ্টি হতে পারে এ ধ’রনের বিচ্ছিরি দাগের। এই বিচ্ছিরি কালো দাগ দূ’র করা যাবে খুব সহ’জে।

১। আলু: যেকোনো কালো দাগ দূ’র ক’রতে আলু বেশ কা’র্যকর। এতে প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান রয়েছে যা ত্বকের জ্বা’লাপোড়া রো’ধ করে। আলু টুকরো করে কে’টে নিন। এটি বা আলুর রস বগলের কালো দাগের স্থানে ঘষুন। ১৫-২০ মিনিট অ’পেক্ষা করুন। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি দিনে দুইবার ব্যবহার করুন।

২। শসা: আলুর মতো শসাতেও প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান রয়েছে যা ত্বকে কালো দাগ হালকা করে থাকে। পা’তলা এক টুকরো শসা কালো দাগের উপর ম্যাসাজ করুন। এটি দিনেদুইবার করুন। এছাড়া শসার রস, হলুদের গুঁড়ো এবং লেবুর রস একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। পেস্টটি বগলের কালো স্থানে লা’গিয়ে রাখু’ন। ৩০ মিনিট অ’পেক্ষা করুন। তারপর আপনি দিয়ে ধুরে ফেলুন। এটি প্রতিদিন ব্যবহার করুন।

৩। বেকিং সোডা: বগলের কালচে দাগ ওঠাতে বেকিং সোডা বেশ কা’র্যকরী। বেকিং সোডার সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রনটি বগলের নিচের ত্বকে ভালো করে ঘষে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে কমপক্ষে ৪ বার ব্যবহার করুন। এতে ধীরে ধীরে বগলের কালো দাগ দূ’র হয়ে যাবে।

৪। লেবু: লেবু প্রাকৃতিক ব্লিচিং হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি শ’ক্তিশালী অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিসেপটিক উপাদান হিসেবে কাজ করে। লেবুর রস ত্বক রুক্ষ করে তোলে তাই লেবুর রস ব্যবহারের পর ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন। বগলের কালো দাগের উপর সরাসরি লেবু ঘষুন। ১০ মিনিট অ’পেক্ষা করুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এছাড়া লেবুর রসের সাথে চিনি মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিতে পারেন। এটি চ’ক্রাকারে ত্বকে ম্যাসাজ করে লা’গান। সপ্তাহে কয়েকবার এটি ব্যবহার করুন। হলুদের গুড়ো, মধু, ট’কদই এবং লেবুর রস একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে বগলে কালো দাগে ব্যবহার ক’রতে পারেন। এটি বগলের কালো দাগ দূ’র ক’রতে সাহায্য করবে।

৫। নারকেল তেল: বগলের কালো দাগ দূ’র ক’রতে আরেকটি কা’র্যকর পদ্ধতি হলো নারকেল তেল। নারকেল তেলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ই যা ত্বকের কালো দাগ হালকা করেতোলে। কালো দাগের স্থানে নারকেল তেল ম্যাসাজ করুন ১০ থেকে ১৫ মিনিট। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি দিনে দুই তিনবার ব্যবহার করুন। নিয়মিত ব্যবহারে বগলের কালো দাগ দূ’র হয়ে যাবে

About admin

Check Also

চাল ধোওয়া জল, ভাতের মাড় কখনো ফেলবেন না; অবিশ্বাস্য কাজের জিনিস!

একবার ভাত হয়ে গেলে, ফ্যান বা মাড়টা কি কখনও রেখে দিয়েছেন? সুতির জামা-কাপড়ে মাড় দেওয়ার ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.